রবিবার, ১২ Jul ২০২০, ০২:০১ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
বরিশাল থেকে প্রকাশিত অনলাইন নিউজ পোর্টা্ল "দৈনিক সময়ের খবর"বরিশাল বিভাগের সকল জেলা ও উপজেলা সহ মহানগরীর ৩০ ওয়ার্ড ও ৪ টি থানায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হইবে।আগ্রহী প্রার্থীরা ৭ দিনের মধো প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহ যোগাযোগ করুন।
সংবাদ শিরোনাম :
একজন দেশপ্রেমিক স্বপ্নদ্রষ্টা যখন পথপ্রদর্শক। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বান্ধবী কে একাধিকবার ধর্ষণ! অতঃপর অন্তঃসত্ত্বা! বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তন নিয়ে নগরজুড়ে তোলপাড়! করোনা জয়ী পুলিশ যোদ্ধাদের সংবর্ধনা দিলেন পুলিশ কমিশনার শাহাবুদ্দিন খান। দীর্ঘ ১২ বছর অপেক্ষিত মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের নিয়োগ,প্রধানমন্ত্রীকে বিএএমটিপি’র কৃতজ্ঞতা ও শুভেচ্ছা। পুত্রসন্তানের জনক হলেন সার্জেন্ট শহিদুল ইসলাম। সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর আর নেই। বরিশালে সড়কের উপর গেট নির্মানের পায়তারা, মেয়রের হস্তক্ষেপ কামনা। সাংবাদিকতার সুযোগ দিচ্ছে “বরিশাল সময়ের খবর” শুদ্ধাচার পুরস্কার পাচ্ছেন প্রফেসর মো. জিয়াউল হক।
আফিফকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন।

আফিফকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন।

অনলাইন ডেস্ক:রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচটিতে হারের বৃত্ত ভেঙেছে বাংলাদেশ। টানা হারের বৃত্তে থাকা সাকিবদের জন্য এই জয়টি ভীষণ প্রয়োজন ছিল। অবশেষে আফিফ ও মোসাদ্দেকের ৮২ রানের জুটিতে ৩ উইকেটের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এমন জয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। ফোন করে অভিনন্দন জানিয়েছেন ম্যাচ জেতানো আফিফ হোসেনকে।

৫২ রান করে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতে সংবাদ সম্মেলনে আসেন আফিফ। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কী কথা হলো এমন প্রশ্নের জবাবে আফিফ বলেছেন, ‘উনি আমাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। ম্যাচ জেতায় পুরো দলকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।’

বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসানও জানালেন, প্রধানমন্ত্রীর ম্যাচের খোঁজ খবর রাখার বিষয়টি। তিনি বলেছেন, ‘ম্যাচের কঠিন মুহূর্তে প্রধানমন্ত্রী দোয়া পড়েছেন, বাংলাদেশ যেন ম্যাচটি জিততে পারে। ম্যাচ শেষ হওয়ার পর ফোনে ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলেছেন।’

সপ্তম উইকেটে ৮২ রানের জুটিতে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে গেছেন মোসাদ্দেক হোসেন ও আফিফ। তাতেই জয় ছিনিয়ে এনেছে বাংলাদেশ। দলের ভালো অবস্থাতেও বোর্ড প্রধানের কাছে এসেছে  প্রধানমন্ত্রীর ফোন। বিসিবি প্রধান জানান, ‘তারপর যখন আফিফ আসল। আফিফের খেলা দেখে উনি বললেন-ও আগে নামে নাই কেন? একে তো আগে দেখিনি। আমি বললাম, আপা ও তুলনামূলকভাবে একদম নতুন। এসেছে মাত্র, ১৯ বছর বয়স। ওর আসলে পাঁচে খেলার কথা ছিল। যাই হোক যেখানে খেলেছে সেট বড় কথা না। ভালো খেলেছে। উনি বললেন-ভালো খেলেছে, ওর খেলা দেখেছি।’
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কতটা ক্রীড়াপ্রেমী সেটা নতুন করে বলা বাহুল্য। দেশের মাঠে খেলা হলে প্রধানমন্ত্রীর মাঠে উপস্থিত হওয়াই সেটা প্রমাণ করে। নিরাপত্তার কারণে অনেক সময় মাঠে উপস্থিত থাকতে না পারলে টিভির সামনে থেকে উঠেন না। শুধু তাই নয়, নিয়মিত ক্রীড়াবিদদের খোঁজ-খবর রাখেন তিনি।

শেয়ার করুন




© dailysomoyerkhobor। সর্বসত্ব সংরক্ষিত।